শীতকালে ঘি খাওয়ার উকারগুলো

প্রতিদিন একটু ঘি খাওয়া স্বাস্থ্যর জন্য ভালো বিশেষ করে শীতের সময়। কারণ ঘিতে আছে উপকারি ভিটামিন, মিনারেল এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। শীতকালে সর্দিকাশি, জ্বরে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা বেড়ে যায় এসময় ঘি কাজে আসে। ঘির নানাবিধ উপকার রয়েছে।

খুশকির প্রকোপ কমায়: শীতকালে ত্বকের নানান রোগের প্রকোপ বেড়ে যায়। এ সময় ঘি নিয়মিত স্কাল্পে ঘি লাগিয়ে মাসাজ করার পর হালকা গরম পানি দিয়ে তা ধুয়ে ফেললে খুশকির প্রকোপ কমে।

দেহের তাপমাত্রা বেড়ে যায়: বেশ কিছু স্টাডিতে দেখা গেছে ঘি খাওয়া মাত্র দেহের ভিতরে এমন কিছু পরিবর্তন হতে শুরু করে যে শরীরের তাপমাত্রা বাড়তে শুরু করে। এই কারণেই তো ঠান্ডার হাত থেকে বাঁচতে শীতকালে বেশি করে ঘি খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন চিকিৎসকেরা।

পুষ্টির ঘাটতি দূর হয়:একাধিক গবেষণায় দেখা গেছে প্রতিদিন ঘি খেলে দেহে যেমন ভিটামিন এ এবং ই-এর ঘাটতি দূর হয়, তেমনি অ্যান্টি-অ্যাক্সিডেন্টের মাত্রাও বৃদ্ধি পেতে শুরু করে। ফলে পুষ্টির ঘাটতি দূর হওয়ার পাশাপাশি দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও এতটা শক্তিশালী হয়ে ওঠে যে ছোট-বড় কোনও রোগই ধারে কাছে ঘেঁষতে পারে না।