সোনামসজিদ বন্দরে শনিবার থেকে পাথর আমদানি শুরু

প্রায় এক মাস বন্ধ থাকার পর অবশেষে জেলা প্রশাসকের উদ্যোগে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম স্থলবন্দর চাঁপাইনবাবগঞ্জের সোনামসজিদ দিয়ে পাথর আমদানি শুরু হচ্ছে।

শনিবার (১৪ ডিসেম্বর) থেকে পাথর আমদানি করার প্রতিশ্রুত দিয়েছেন বাংলাদেশের আমদানিকারকরা। এর আগে, বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা থেকে ৩ ঘণ্টাব্যাপী বৈঠক অনুষ্ঠিত হয় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে। এ সময় চাঁপাইনবাবগঞ্জ-১ (শিবগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য ডা. সামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুল, সোনামসজিদ বন্দর আমদানি–রপ্তানিকারক অ্যাসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দসহ জেলা প্রশাসনের ঊর্ধ্বতর কর্তৃপক্ষ উপস্থিত ছিলেন।

চাঁপাইনবাবগঞ্জের জেলা প্রশাসক জানান, সমস্যা সমাধানে আমদানি-রপ্তানি গ্রুপের নেতাদের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। সেই সঙ্গে আমদানিকারকদের বিভিন্ন সমস্যা শুনে সে বিষয়ে আলোচনা করতে জেলা প্রশাসনের একটি দল ভারতও ঘুরে এসেছে। সমস্যাগুলো নিয়ে ফলপ্রসু আলোচনার পর শনিবার থেকে বাংলাদেশে পাথর আমদানি শুরু হবে।

সরকারি রাজস্ব বাদেও আমদানিকারকরা ট্রাকপ্রতি বন্দর ট্যারিফ হিসেবে ৭৮৩ টাকা দিয়ে আসছিল যারমধ্য ৪৯ শতাংশ যেত সরকারি কোষাগারে। বাকি ৫১ শতাংশ পেত পানামা। কিন্তু ১৪ নভেম্বর হঠাৎ করেই বন্দর ট্যারিফ টনপ্রতি ১৬২ টাকা নির্ধারণ করে মৌখিক নির্দেশনা দেয় পানামা। একই সঙ্গে পানামার ভেতরে পণ্য খালাসের নির্দেশনাও দেয় তারা। বিষয়টি নিয়ে বৈঠকে বসে পানামা ও আমদানি-রপ্তানিকারক গ্রুপ। কিন্তু এর সমাধান না হওয়ায় গত ১৭ নভেম্বর থেকে পাথর আমদানি বন্ধ করে দেয় তারা।